• রোববার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৫ ১৪২৭

  • || ০২ সফর ১৪৪২

২৩

এই সময় কাঁচা মরিচ সংরক্ষণের কয়েকটি উপায়

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ১৩ আগস্ট ২০২০  

রান্নার স্বাদ বাড়াতে লবণের সঙ্গে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন আরো একটি উপাদান। আর সেটি হলো কাঁচা মরিচ। খাবারের স্বাদ বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে মরিচের আছে নানান স্বাস্থ্য উপকারীতাও।

এতে আছে ক্যাপসেইসিন নামের একটি উপাদান। এই ক্যাপসেইসিন শরীরের প্রদাহ ও বাতের ব্যথা কমায়।   

আমেরিকার ইনস্টিটিউট অব ক্যানসার রিসার্চ বলছে, টাটকা সবুজ কাঁচা মরিচে যে ক্যাপসেইসিন আছে, তা ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি রোধ করতে পারে। তাই কাঁচা মরিচে কেবল ঝালই নেই, আছে নানা উপকারও। এতে রয়েছে ভিটামিন সি। যা এই সময় আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে।

তবে সারাদেশে বন্যার কারণে বেড়ে যাচ্ছে কাঁচা মরিচের দাম। এখনো হাতের নাগালে রয়েছে কাঁচা মরিচের দাম। তাই দীর্ঘদিন কাঁচা মরিচ ঘরে সংরক্ষণ করুন। এতে করে দাম বেশি হোক বা কম আপনাকে আর মাস ছয় কিনতেই হবে না কাঁচা মরিচ। জেনে নিন সংরক্ষণের কয়েকটি উপায়- 

> জিপ লক ব্যাগে দীর্ঘদিন কাঁচা মরিচ সংরক্ষণ করা যায়। কাঁচা মরিচের বোঁটা ফেলে জিপ লক ব্যাগে রেখে দিন। ব্যাগসহ মরিচগুলো ফ্রিজে রেখে দিলে দীর্ঘদিন ভালো থাকবে।

> এছাড়াও বায়ু নিরুদ্ধ পাত্রে রেখে সংরক্ষণ করতে পারেন কাঁচা মরিচ। পাত্রের মধ্যে দুই লেয়ারে একটা তোয়ালে বিছিয়ে দিয়ে তার মধ্যে বোঁটা ছাড়িয়ে মরিচ রেখে দিন। এবার তোয়ালে দিয়ে মরিচগুলো ঢেকে দিন। পাত্রের মুখ বন্ধ করে ফ্রিজে রেখে দিন। তোয়ালেটা মরিচ থেকে অতিরিক্ত আর্দ্রতা শুষে নিয়ে ২০ থেকে ২৫ দিন ভাল রাখবে।

> কাঁচা মরিচ ডিপ ফ্রিজে রেখেও কিন্তু সংরক্ষণ করা যায়। এজন্য বোঁটা ছাড়িয়ে পলিথিনের ব্যাগে করে রেখে দিতে পারেন। আবার ব্লেন্ড করেও ডিপ ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন মাসের পর মাস।  

> কাঁচা মরিচ দীর্ঘদিন সতেজ রাখার অন্যতম উপায় হলো অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল পেঁচিয়ে ফ্রিজে রাখা। একটা পাত্রে কাঁচা মরিচ রেখে পাত্রসহ অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে ঢেকে দিন। এইভাবে ৬ থেকে ৭ ঘন্টা ফ্রিজে রেখে দিন। তারপর পাত্রটা বের করে বায়ুনিরুদ্ধ পাত্রে ঠাণ্ডা মরিচগুলো রেখে আবার ফ্রিজে রেখে দিন। 

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া
লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর