• শুক্রবার   ৩০ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ১৪ ১৪২৭

  • || ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

৭২

কাহালুতে কৃষকদের জমি থেকে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করলেন ইউএনও

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ২৭ জুলাই ২০২০  

বগুড়ার কাহালু উপজেলার সদর ইউনিয়নের মহেশপুর এলাকায় কৃষকদের সাথে রৌদ্রে দাঁড়িয়ে থেকে ক্যাপিটাল মেশিন দিয়ে ১০টি গ্রামের আবাদী জমির পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান।

এলাকাবাসী পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থার জন্য কাহালু উপজেলা নির্বাহি অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেন। এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন ধরে কাহালু-মালঞ্চা সড়কের দু-পার্শ্বে সরকারী নয়ন জলীতে মহেশপুর এলাকায় কতিপয় লোকজন ব্রীজ, কালভাটের মুখে মাটি ভরাট করে বর্ষার পানি নিস্কাশনের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন।

ফলে কাহালু সদর ইউনিয়নের মহেশপুর, মহরাবানী সহ উপজেলার দলগাড়া, অঘোরশাল, ধাওয়াপাড়া, ইসবপুর, মালোহালী, ওলাহালী, ডোমরগ্রাম ও মহরাজয় গ্রামের মাঠের আবাদী জমির পানি নিস্কাশন বন্ধ হয়ে যায়। চলতি মৌসুমে অত্র এলাকার পানি বেশী জমে থাকায় আমন মৌসুমে কৃষককেরা এখন পর্যন্ত জমিতে হাল চাষ করতে পারছেন না।

রোববার এলাকাবাসীর লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কাহালু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান অত্র এলাকায় গিয়ে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করেন এবং কাহালু সদর ইউ পি চেয়ারম্যানকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাহালু উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. আব্দুর রশিদ (লালু), কাহালু সদর ইউ পি চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক পি এম বেলাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান, কাহালু উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা নজিবর রহমান সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

কাহালু সদর ইউ পি চেয়ারম্যান সহকারী অধ্যাপক পি এম বেলাল হোসেন জানান, আমি নিজ উদ্যোগ নিয়ে পানি নিস্কাশনের জন্য ক্যাপিটাল মেশিন এনে কাজ শুরু করেছি। আমাকে কাহালু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাছুদুর রহমান স্যার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা নজিবর রহমান সহ উক্ত গ্রামবাসী সার্বিকভাবে সহযোগিতা করছে। তিনি আরও জানান, উক্ত বিষয়টি নিয়ে আমি কাহালু-নন্দীগ্রাম এলাকার সদস্য আলহাজ্ব মো. মোশারফ হোসেনের সাথে কথা বলেছি।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া
বগুড়া বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর