• বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৭ ১৪২৭

  • || ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

২৩

ঘরেই তৈরি করুন চুলের ‘স্মুথনিং প্যাক’

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০  

পরিবেশের দূষণ, ধুলাবালি, ঘাম, কেমিকেল পণ্য ব্যবহার, ঠিকভাবে যত্ন না নেয়া চুলের একেবারে বারোটা বাজিয়ে দেয়। এজন্য মাঝে মাঝেই পার্লারে গিয়ে চুলের যত্ন নেন। স্পা, স্মুথনিং করে থাকেন। তবে এখন পার্লারে যাওয়া হচ্ছে না। 

অযত্নে অবহেলায় চুল হয়ে যায় রুক্ষ। এ ছাড়াও মাত্রাতিরিক্ত চুল ঝরা, চুলের আগা ফেটে যাওয়ার মতো একাধিক সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবেঘরেই এর সমাধান করতে পারেন। প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহারের মাধ্যমে চুলের ক্ষতি ছাড়াই পেতে পারেন স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ও সোজা সুন্দর চুল। জেনে নিন কীভাবে এই  স্মুথনিং প্যাকটি তৈরি করবেন- 

প্যাকটি বানাতে যা যা লাগবে- 
২ কাপ নারিকেল কোড়ানো বা নারকেলের দুধ নিতে পারেন। আর লাগছে ২ চামচ কর্ণফ্লাওয়ার, ২ চামচ লেবুর রস, ১০০ মিলিলিটার পানি(( কোড়ানো নারকেল নিলে), ৬ চামচ অ্যালোভেরা জেল, ২ চামচ ক্যাস্টর অয়েল। আপনার চুল বেশি লম্বা হলে উপকরণগুলো পরিমাণে বাড়িয়ে নিন।

যেভাবে বানাবেন-
২ কাপ কোড়ানো নারকেল, ১০০ মিলি পানি এবং ৬ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল ভাল করে মিশিয়ে নিন। বেশ ঘন একটা পেস্ট তৈরি করে পাতলা কাপড়ে মিশ্রণটা বেঁধে একটি পাত্রের উপর রেখে নিংড়ে নিন। আর যদি নারকেলের দুধ ব্যবহার করেন। তাহলে আর নিংড়ে নেয়ার ঝামেলা থাকবে না। 

এভাবে অ্যালোভেরা জেল মেশানো নারকেলের দুধ পেয়ে যাবেন। অন্য একটি পাত্রে ২ টেবিল চামচ লেবুর রস, ২ টেবিল চামচ কর্ণফ্লাওয়ার আর ১ টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল ভালো করে মিশিয়ে করে নিন। এবার সামান্য আঁচে ননস্টিক পাত্রে নারকেলের দুধ ঢেলে নিন। জ্বাল করতে থাকুন। ফুটে উঠলে কর্ণফ্লাওয়ার, লেবুর রস আর ক্যাস্টর অয়েলের মিশ্রণটি ঢেলে ভালো করে নাড়তে থাকুন। মিশ্রণটি ঘন হয়ে এলে নামিয়ে ঠান্ডা হওয়ার জন্য অপেক্ষা করুন।   

ব্যবহার করার পদ্ধতি
পুরো মাথার চুলকে কয়েক ভাগে ভাগ করে নিন। চুলের গোঁড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভালো করে মিশ্রণটি মাখুন। এভাবে ঘণ্টা দুই রেখে দিন। কারণ, মিশ্রণটি যত সময় রাখতে পারবেন, ততই ভালো ফল পাবেন। এই অবস্থায় চুল ভুলেও বাঁধবেন না। চিরুনি দিয়ে সোজা করে আঁচড়ে নিয়ে বসে থাকুন। এবার নিয়মিত ব্যবহারের শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। ড্রায়ারে শুকানো যাবে না। প্রয়োজনে ফ্যান চালিয়ে বা স্বাভাবিকভাবে চুল শুকিয়ে আঁচড়ে নিন। 

ভালো ফল পেতে সপ্তাহে অন্তত একবার এই প্যাক ব্যবহার করুন। কয়েকবার ব্যবহারেই  দেখবেন আপনার ঢেউ খেলানো বা কোঁকড়ানো চুলগুলো অনেকটাই সোজা হয়ে গিয়েছে। এরই সঙ্গে হয়ে গিয়েছে সুন্দর ঝলমলে। যাদের চুল কোঁকড়ানো, স্বাভাবিকভাবে তাদের একটু বেশি সময় লাগবে।  

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া
লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর