• মঙ্গলবার   ১৫ জুন ২০২১ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৩১ ১৪২৮

  • || ০৫ জ্বিলকদ ১৪৪২

চীনা টিকার যৌথ উৎপাদন হলে দুই দেশই লাভবান হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ১২ মে ২০২১  

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, চীনা টিকা পেতে দেরি হওয়ায় কাউকে দোষারোপ করার সুযোগ নেই। তবে এ টিকার যৌথ উৎপাদনে গেলে দুই দেশই লাভাবান হবে।

বুধবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় চীনের উপহার দেয়া ৫ লাখ টিকা হস্তান্তর অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, চীনা টিকার বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদন না দেয়ায় আমরা আনতে খুব একটা আগ্রহী ছিলাম না। আমাদের বিশেষজ্ঞরাও এ বিষয়ে এমনই নির্দেশনা দিয়েছিলেন। তবে এখন অনুমোদন দেয়ায় আমরা এ টিকা আনতে চাই। তবে, টিকা আনতে দেরি হওয়ায় কাউকেই দোষারোপ করার সুযোগ নেই।

করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ৫ লাখ টিকা উপহার দেয়ায় চীন সরকারকে ধন্যবাদ জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

চীনা টিকা হস্তান্তর উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন- স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক, ঢাকায় নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া