• শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৩ ১৪২৮

  • || ০৫ রমজান ১৪৪২

জায়ফলের উপকারিতা

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ১২ মার্চ ২০২১  

হালকা সুগন্ধিযুক্ত মসলা জায়ফল। ইংরেজি নাম ‘নাটমেগ’। গরম মশলা ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের মিষ্টি কিংবা মজাদার অন্যান্য রান্নায় বহুল ব্যবহৃত। তবে ওষুধের উপকরণ হিসেবেও জায়ফলের সুনাম আছে। সর্দিকাশিতে জায়ফলের গুঁড়া খুবই উপকারী। প্রাচীনকাল থেকে গর্ভপাত করাতেও খ্যাতি রয়েছে। জায়ফলে প্লেগ রোগ ভালো হয় এমন কথাও শোনা যায়।

জায়ফলের আদিবাস ইন্দোনেশিয়ার বান্দা দ্বীপে। গড়ে প্রায় ৩৫ ফুট উঁচু জায়ফল গাছ। কাঁঠালপাতার মতো আকৃতি। বর্ষার আগেই ফুল আসে, ঋতু শেষে ফল। ফলের বীজ থেকে ঝরে পড়ে জৈত্রি। বীজ এবং জৈত্রি দুটোই ব্যবহারযোগ্য। খাবারকে সুস্বাদু ও সুগন্ধি করা জায়ফলের ভেষজ উপকারিতা অনেক।

আসুন এবার জায়ফল এর উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক :

গেটে বাতে জায়ফলের তেল মালিশ করলে উপকার পাওয়া যায়।

জায়ফল খেলে মুখ সুগন্ধিত হয়।

সঠিক পরিমাণে খেলে ডায়াবেটিস রোগ সারে।

চোখেল চুলকানিতে জায়ফলের প্রলেপ লাগালে উপকার হয়।

জায়ফল শুকনো খোলায় ভেজে খেলে পায়খানা বন্ধ হয়।

তেলের সাথে মিশিয়ে কানে দিলে কান কালা হওয়া সেরে যায়।

জায়ফলের সুর্মা পারলে চোখের রোগ উপকার হয়।

ঘামের দুগন্ধ দূর হয়, বায়ু নিঃসারিত হয়ে যাওয়ার জন্য বায়ুর আধিক্য কমে যায়।

জায়ফল ভাতের ফ্যানে ঘষে খাওয়ালে হেচকি ও বমি ভাব সেরে যায়।

জায়ফল ও শুকনো আদা গাওয়া ঘিয়ে ঘষে চাটালে বাচ্চাদের সর্দির জন্যে যদি পেটের অসুখ করে তা সারবে।

জায়ফলের এক দু ফোটা তেল বাতাসার বা চিনির সঙ্গে মিশিয়ে খেলে পেট ব্যাথা ও গ্যাস সারে।

একটা জায়ফলের এক চতুর্থাংশ গুড়ো জলে মিশিয়ে খেলে ঘুম ভালো হয়।

জায়ফল ঘষে তার প্রলেপ কপালে লাগালে ঘুম ভাল হয়।

জায়ফল মায়েদের স্তনের দুধ বাড়িয়ে দেয়।

জায়ফলের তেলে ভেজানো তুলো দাতে রাখলে দাতের পোকা মরে যায় এবং দাতের ব্যাথা কমে এবং পাইয়োরিয়া সারে।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া