• মঙ্গলবার   ১৫ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ১ ১৪২৮

  • || ০৬ জ্বিলকদ ১৪৪২

ট্রাম্পের ফেসবুক-ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা বহাল রইল

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ৬ মে ২০২১  

ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফেসবুক এবং ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারের নিষেধাজ্ঞার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন ফেসবুক তদারকি বোর্ড। তবে এই বোর্ড এই নিষেধাজ্ঞার সমালোচনা করছে কারণ এটি ফেসবুকের সাধারণ জরিমানার পরিধি ছাড়িয়ে গেছে।

এই বোর্ড ফেসবুককে নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার পাশাপাশি জরিমানার সাধারণ প্রতিক্রিয়া জানাতে বলেছেন। সাধারণ ব্যবহারকারীরাও এই একই বিষয়ের জন্য ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে আবেদন জানিয়েছেন।

জানুয়ারিতে ক্যাপিটাল হিলে দাঙ্গার পরে সাবেক রাষ্ট্রপতিকে উভয় সাইট, ফেসবুক এবং ইন্সটাগ্রাম, থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তদারকি বোর্ড জানিয়েছেন যে ট্রাম্পকে স্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করার প্রাথমিক সিদ্ধান্তটি ছিল তাড়াহুড়ার এবং অনুপযুক্ত। পাশাপাশি তারা আরো জানিয়েছেন যে, সঠিক সিদ্ধান্ত গঠিত হওয়া উচিৎ ছিল নীতিমালা অনুযায়ী যে নীতিমালাগুলো এই প্লাটফর্মের অন্যদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হয়েছে।

তদারকি বোর্ড আরো বলেন যে ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে ৬ মাসের মধ্যে এই নিষেধাজ্ঞার প্রতিক্রিয়া জানাতে হবে।

এক সংবাদ সম্মেলনে তদারকি বোর্ডের সহযোগী হেলি থোরিং সাকমিট বলেছেন ‘আমাদের কাছে সহজ কোন উপায় ছিল না।’ তিনি আরো যুক্ত করেছেন যে তিনি ভেবেছেন যে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এই সিদ্ধান্তের প্রশংসা করবে।

তিনি আরো বলেন ‘আমরা পুনরায় সিদ্ধান্ত দিতে বলছি এবং এসব বিষয় ফেসবুক কীভাবে গ্রহণ করে তাতে আরো স্বচ্ছতা আনতে বলছি।’

প্রতিক্রিয়ায় ফেসবুক জানায় তারা বোর্ডের সিদ্ধান্ত বিবেচনা করবে একটি সিদ্ধান্ত নির্ধারণ করবে যা হবে স্বচ্ছ ও সাধারন নীতিমালার সমানুপাতিক।

এছাড়াও ফেসবুক কীভাবে তার নীতিমালাগুলোর উন্নয়ন সাধন করবে তার জন্য ফেসবুক তদারকি বোর্ড কিছু সুপারিশ তৈরি করেছে এবং ফেসবুক এসব বিষয় পুনরমূল্যায়ন করার প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছে।

বোর্ড গত মাসে তার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করার কথা ছিল, তবে মামলায় ৯০০০টিরও বেশি জনসাধারণের প্রতিক্রিয়া পর্যালোচনা করার জন্য এই রায়টি বিলম্ব করেছিল।

এ সময় গত মঙ্গলবার, মি. ট্রাম্প, যাকে টুইটার থেকেও নিষিদ্ধ করা হয়েছে, তার মতাদর্শ বাড়ানোর জন্য নতুন একটি ওয়েবসাইট চালু করেছেন।

ফেসবুকের একটি পোস্টে রায় প্রকাশিত হয়েছিল যে , ডোনাল্ড ট্রাম্প আবারও দাবি করেছেন যে ২০২০ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে এবং এই কারচুপির বিষয়টা যেন ভুলে না যায় সেজন্য তার সমর্থকদের প্রণোদিত করেছেন।

বোর্ড কী বলেছে?

বোর্ড বলেছে যে এই রায়ের অর্থ হলো ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিলম্বন আপাতত রয়ে গেছে; ট্রাম্প ফেসবুকের নীতিমালা ভেঙেছে তাই তারা,বোর্ড, এই নিষেধাজ্ঞা সমর্থন করেছে। তবে এটি নিষেধাজ্ঞার একটি অনির্দিষ্ট অংশ যে যে ইস্যুতে ফেসবুক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তা এর নিজস্ব নিয়মের বাইরে।

এছাড়াও একটি বিবৃতিতে তদারকি বোর্ড বলেছে কবে,কীভাবে অ্যাকাউন্ট পুনরুদ্ধার করা যাবে তা না জানিয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য একজন ব্যবহারকারীকে প্লাটফর্মের বাহিরে রাখা ফেসবুকের জন্য অনুমোদনযোগ্য নয়।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া