• শুক্রবার   ১৪ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ৩০ ১৪২৭

  • || ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

১৩৭

মঙ্গল শোভাযাত্রা হবে না, পোস্টার ঘুরবে দেয়ালে দেয়ালে

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০২০  

দুদিন পরই বাংলা পঞ্জিকায় যুক্ত হবে নতুন আরেকটি বছর। বঙ্গাব্দ ১৪২৭। নববর্ষের প্রথম দিনটিকে বরণ করে নিতে প্রতিবছর বাংলা ভাষাভাষী প্রতিটি জনপদে উৎসবের আয়োজন করা হলেও এবার উদযাপনের আনন্দকে থামিয়ে দিয়েছে করোনাভাইরাস। তাই এবার পয়লা বৈশাখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ বন্ধ রাখছে মঙ্গল শোভাযাত্রার অনুষ্ঠান।

মঙ্গল শোভাযাত্রা না হলেও এর জন্য একটি পোস্টার প্রকাশ করেছে চারুকলা অনুষদ। ‘মুক্ত করো ভয়, আপনা মাঝে শক্তি ধরো, নিজেরে করো জয়’ স্লোগানে পৃথিবীর বর্তমান পরিস্থিতি কাটিয়ে ওঠার আহ্বান রয়েছে এই পোস্টারে। ঢাকার রাজপথে এবার রঙ-বেরঙেরর মুখোশ ও ফানুস ঘুরে না বেড়ালেও এই পোস্টারটি ঘুরে বেড়াবে দেয়ালে দেয়ালে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন বলেন, এবার শোভাযাত্রা করা যাচ্ছে না তাই মন খারাপ। তবে আমরা যে পোস্টারটি নকশা করেছি সেটি অন্তর্জালের মাধ্যমে ঘুরবে সারাদেশে। শোভা পাবে রাজধানীর দেয়ালেও। এর স্লোগানের মাধ্যমে অদৃশ্য শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মানুষকে শক্তি যোগানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

শিল্পকলার প্রবীণ এই অধ্যাপক জানান, কালো জমিনের ওপর লাল, সাদা ও হলুদ রঙের বর্ণমালায় লেখা হয়েছে স্লোগান। সবার ওপরে বৈশাখ ১৪২৭ লেখার পর রক্তিম বর্ণমালায় ওপরের অংশে লেখা হয়েছে আর্নেস্ট হেমিংওয়ের ‘দি ওল্ড ম্যান অ্যান্ড দ্য সি’ উপন্যাসের বিখ্যাত সংলাপ ‘মানুষ ধ্বংস হতে পারে, কিন্তু মানুষ পরাজিত হয় না’।

তার নিচে সাদা বর্ণমালায় লেখা হয়েছে ‘এই বৈশিষ্ট্যের কারণেই মানুষ সেরা। বর্তমানের এই সংকট থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য সর্বশক্তি দিয়ে লড়াই চালিয়ে যেতে হবে এবং শেষ পর্যন্ত মানুষ জয়ী হবেই।’

এই লেখার পর বড় অংশজুড়ে দৃশ্যমান হয়েছে একটি বর্ণিল সরাচিত্র। এর নীচে লেখা আছে মূল স্লোগান। পোস্টারের কারিগর নিসার হোসেন বলেন, প্রতিবছর মঙ্গল শোভাযাত্রায় মানুষের মিলন ঘটলেও, এবার আমরা বিয়োগের আহ্বান জানিয়েছি।

মানে সবাইকে ঘরে থাকতে এবং নিরাপদ থাকতে বলছি। বেঁচে থাকলে মঙ্গল শোভাযাত্রা করা যাবে। আনন্দ আয়োজনও অনেক হবে। কিন্তু এবারের ঘটনাপ্রবাহ সম্পূর্ণ বিপরীত। এজন্য আমাদেরকে এখন ঘরে থাকতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

উল্লেখ্য, স্বৈরাচারী শাসনের বিরূদ্ধে সাধারণ মানুষের ঐক্য এবং একইসঙ্গে শান্তির বিজয় ও অপশক্তির অবসান কামনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে ১৯৮৯ খ্রিষ্টাব্দে সর্বপ্রথম মঙ্গল শোভাযাত্রার প্রবর্তন হয়। এরপর চারুকলার শিক্ষক-শিক্ষার্থীগণ পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে এই আনন্দ শোভাযাত্রা বের করার উদ্যোগ প্রতি বছর অব্যাহত রাখে।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া
জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর