• মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

এক জালে দুই কেজির ১৫ ইলিশ

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ২ জানুয়ারি ২০২৩  

শীতের মধ্যেই বড় ফেনী নদীতে জেলেদের জালে ধরা পড়েছে দুই ও এক কেজি ওজনের ৫৫টি ইলিশ। শনিবার (১ জানুয়ারি) ধরা পড়া ইলিশগুলোর মধ্যে ১৫টির ওজন দুই কেজির বেশি। বাকি ৪০টির ওজন সাড়ে ৯০০ থেকে ১ কেজি ১০০ গ্রাম। মাছগুলো নদীর তীরে আড়তে নিয়ে নিলামে ৯৫ হাজার ৫০০ টাকায় কিনে নেন স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ী আবদুল মান্নান ও নেয়ামত উল্যাহ। পরে ১৫টি বড় ইলিশ ৫৭ হাজার ৬০০ টাকায় বিক্রি করেন ওই ব্যবসায়ী।

স্থানীয়রা জানায়, শীত চলে আসায় নদীতে ইলিশ কমে গেছে। এরপরও পাঁচ-ছয় জেলে যৌথভাবে প্রতিদিন নদীতে জাল ফেলেন। উপজেলার আদর্শগ্রাম এলাকার জেলে মো. আবদুল খালেক, আবুল কাশেম, সফি উল্যাহসহ ১০-১২ জন ভোরে নদীতে জাল ফেলে বসেছিলেন। দুপুরে জোয়ার কমতে থাকায় জালে হঠাৎ টান পেয়ে বুঝতে পারেন, বড় কিছু আটকা পড়েছে। জাল টেনে নৌকায় তুলতেই সবাই দেখেন, বড় বড় অনেক ইলিশ ধরা পড়েছে।

জেলে আবদুল খালেক বলেন, মাছগুলো ধরা পড়ার পর বিকেলে নদী থেকে ফিরে মাছগুলো স্থানীয় আড়তে বিক্রি করতে নিয়ে যাই। সেখানে নিলামে সর্বোচ্চ দরদাতার কাছে মাছগুলো বিক্রি করি। পৌর শহরের পাইকারি মাছ বিক্রেতা নেয়ামত উল্যাহ, আবদুল মান্নানসহ তিন ব্যবসায়ী যৌথভাবে আমার ছোট-বড় সবগুলো ইলিশ আলাদাভাবে কেজি দরে কিনে নেন।

মাছ ব্যবসায়ী আবদুল মান্নান বলেন, বেশ কয়েক দিন ধরে নদী তীরে গিয়ে ২০-৩০ কেজির বেশি মাছ কিনতে পারিনি। বিকেলে মাছ কিনতে আড়তে গিয়ে বড় ইলিশ দেখে অবাক হই। পরে নিলামে ডাক তুললে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে আমরা দুজন ১৫টি ইলিশ ৪৮ হাজার ২০০ টাকায় কিনে নেই। পরে মাছগুলো বিক্রি করার জন্য বিকেলে পৌর শহরের মাছবাজারে নিয়ে যাই। উৎসুক অনেকে বড় ইলিশ দেখতে ভিড় করেন।

ব্যবসায়ী নেয়ামত উল্যাহ বলেন, দুই কেজির ইলিশ ১৫টি দুই হাজার টাকা কেজি দর হাঁকেন প্রথমে। পরে এক হাজার ৭৫০ থেকে এক হাজার ৮০০ টাকা কেজি দরে সব বিক্রি করে দেই। এছাড়া অন্য ইলিশগুলো ৮০০ থেকে এক হাজার ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেছি।

স্থানীয় জেলেরা জানান, সম্প্রতি বড় ও ছোট ফেনী নদীতে ইলিশ ছাড়াও ৫ থেকে ২০ কেজি ওজনের কোরাল, বোয়াল, কাতলা, পাঙাশ, বাগাড়সহ বিভিন্ন ধরনের মাছ পাওয়া যাচ্ছে। এসব মাছ বেশ সুস্বাদু। সোনাগাজী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা তূর্য সাহা বলেন, মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানের আগে মাঝেমধ্যে বিভিন্ন প্রজাতির বেশ বড় মাছ পাওয়া গেছে। এ মৌসুমে নদীতে একাধিকবার দুই-আড়াই ও তিন কেজি ওজনের বড় ইলিশ ধরা পড়েছে।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া