শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১

ওমিক্রন প্রতিরোধে বুস্টার ডোজ দরকার নেই: গবেষণা

ওমিক্রন প্রতিরোধে বুস্টার ডোজ দরকার নেই: গবেষণা

বিশ্বব্যাপী ভয়াবহ আতঙ্ক তৈরি করেছে করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট ওমক্রিন। এর প্রভাবে বিভিন্ন দেশে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। করোনার নতুন এই ধরনটি ডেল্টার তুলনায় অনেক বেশি সংক্রামক বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। ওমিক্রন ঘিরে চলছে নানা গবেষণা।

সম্প্রতি এক গবেষণায় উঠে এসেছে, মডার্নার তৈরি বুস্টার ডোজ বানরের শরীরে যে ধরনের রোগ প্রতিরোধব্যবস্থা তৈরি করে,ঠিক একই ধরনের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরি করে করোনার সাধারণ টিকাও। মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, এ গবেষণা থেকে এই ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে, ওমিক্রনের জন্য আলাদাভাবে টিকার বুস্টার ডোজের প্রয়োজন নেই। গত সপ্তাহে মানবদেহে ওমিক্রনের জন্য তৈরি বুস্টার ডোজের পরীক্ষা চালিয়েছে ফাইজার-বায়োএনটেক ও মডার্না। এরপর এমন তথ্য জানালেন গবেষকেরা; যদিও গবেষণাটি এখনো প্রকাশিত হয়নি।

এদিকে, মানবদেহে ওমিক্রনের জন্য তৈরি বুস্টার ডোজের যে পরীক্ষা চালানো হচ্ছে, সেই পরীক্ষার প্রতিবেদনকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। কারণ এই বুস্টার ডোজ দেওয়ার পর রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার কী হয় এবং সময়ের সঙ্গে সঙ্গে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় কি না, এটা জানতে অপেক্ষা করছেন গবেষকেরা। বানরের ওপর যে গবেষণা চালানো হয়েছে, তার নেতৃত্ব দিয়েছেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাচ ডিজিজের সেলুলার ইমিউনোলজি বিভাগের প্রধান রবার্ট সেডার।

তিনি জানান, ওমিক্রন এখনো ইনফ্লুয়েঞ্জার পর্যায়ে নেমে আসেনি যে টিকায় পরিবর্তন আনতে হবে। ওমিক্রনের জন্য আলাদা টিকার দরকার নেই। তবে এই ধরন যদি প্রভাব বিস্তারকারী হিসেবে রয়ে যায় এবং এর থেকে পরিবর্তিত হয়ে নতুন ধরন তৈরি হয়, তবে টিকায় পরিবর্তন আনতে হতে পারে।গবেষণায় উঠে এসেছে, করোনার টিকার তৃতীয় ডোজ শুধু ভাইরাস প্রতিরোধী অ্যান্টিবডি পরিমাণই বাড়াচ্ছে না; করোনার নতুন ধরনগুলো প্রতিরোধ করতেও অ্যান্টিবডিকে এগিয়ে দেয়।

দৈনিক বগুড়া

সর্বশেষ: