• বুধবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৮

  • || ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

কতটা ধ্বংসাত্মক হতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’?

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ৩০ এপ্রিল ২০১৯  

 

ঘূর্ণিঝড় ফণি আরো শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় এর মাত্রা বাড়বে৷ এটি আগামী ২ মের মধ্যে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের দিকে অগ্রসর হতে পারে। এর প্রভাবে দক্ষিণ ভারত, ওডিশা ও বাংলাদেশে ব্যাপক বৃষ্টি শুরু হতে পারে। ৫ মের মধ্যে এটি ভারত বা বাংলাদেশ উপকূলে আঘাত হানতে পারে। বাংলাদেশ ও ভারতের আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়ার বিশেষ পূর্বাভাসে এই আশঙ্কার কথা বলা হয়েছে। 
 
বাংলাদেশের তরফেই ঘূর্ণিঝড়টির নাম দেয়া হয়েছে ফণি। ‘এক্সট্রিমলি সিভিয়ার সাইক্লোনিক স্টর্ম’-এ পরিণত হচ্ছে ঝড়টি। ১৮৫ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়তে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

 

 

গত রোববার ফণির অবস্থান ছিল বাংলাদেশ থেকে দেড় হাজার কিলোমিটারের বেশি দূরে। সোমবার ছিল ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের মছলিপত্তনম থেকে ১,০৯০ কিলোমিটার এবং চেন্নাইয়ের দক্ষিণ-পূর্ব থেকে ৮৮০ কিলোমিটার দূরে।

ফণি যত এগিয়ে আসছে ততই উত্তাল হচ্ছে সমুদ্র। এর প্রভাবে কালবৈশাখীর আশঙ্কা রয়েছে।

ঘূর্ণিঝড়ের ৫টি ভাগ রয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ যদি ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার হয় তাকে ‘ট্রপিক্যাল সাইক্লোন’ বলে। ৮৯-১১৭ কিলোমিটার গতিবেগের ঝড়কে ‘সিভিয়ার সাইক্লোনিক স্টর্ম’।

ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ১১৮-১৬৫ কিলোমিটার হলে তাকে ‘ভেরি সিভিয়ার সাইক্লোনিক স্টর্ম’ বলা হয়। ১৬৬-২২০ কিলোমিটার হলে ‘এক্সট্রিমলি সিভিয়ার সাইক্লোনিক স্টর্ম’, ২২১ কিলোমিটারের বেশি হলে তখন সেটাকে ‘সুপার সাইক্লোন’ বলে।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া