• রোববার   ১২ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪২৭

  • || ২২ জ্বিলকদ ১৪৪১

১২

কোলেস্টেরল ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণসহ কলার থোড়ে রয়েছে অজানা পাঁচ উপকার

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ২৬ জুন ২০২০  

কলার থোড় খেয়েছেন নিশ্চয়ই? খেতে বেশ সুস্বাদু হয় এটি। মূলত থোড় বলতে আমরা বুঝি ফলন্ত কলা গাছের কাণ্ডের মজ্জা। যা কলার থোড় হিসেবে বেশ পরিচিত। কলার মতোই এটি বেশ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ। থোড় তরকারি, শরবত সহ নানাভাবে খাওয়া যায়।

শরীরের বিভিন্ন চাহিদা পূরণে কলার থোড় সহায়তা করে। কলাতে থাকে প্রচুর পটাশিয়াম ও বিভিন্ন ভিটামিন, কলাগাছের ফুল ডায়বেটিস রোগীদের জন্য বিশেষ উপকারী। ঠিক তেমনি কলার থোড়ের রয়েছে বিশেষ পাঁচ উপকারিতা। যা অনেকের কাছেই অজানা। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কলার থোড়ের উপকারিতাগুলো-

কোলেস্টেরল ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ

ভিটামিন বি৬ ভরপুর এই খাবারে আছে পটাশিয়াম, লৌহ এবং রক্তে হিমোগ্লোবিন বাড়ানোর উপাদান। তাই কোলেস্টেরল ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে এটি বেশ উপকারী।

অ্যাসিডিটি ও গ্যাসের সমস্যা তাড়াতে

নিয়মিত অ্যাসিডিটির সমস্যায় ভুগলে আপনার উচিত কলার থোড়ের শরবত খাওয়া। যা শরীরে অ্যাসিডের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে, বজায় রাখে ভারসাম্য। বুক জ্বালাপোড়া, অস্বস্তি ও পেটব্যথা সারাতেও এটি বেশ উপকারী।

হজম সহায়ক ও বিষনাশক

কলার থোড়ের সরবত শরীর থেকে বিভিন্ন বিষাক্ত উপাদান দূর করতে সাহায্য করে। মুত্রবর্ধক এই খাবার শরীরকে ভেতর থেকে পরিষ্কার করার জন্য আদর্শ। নিয়মিত অন্ত্র থেকে মল অপসারণ সহজ করতে এবং অন্ত্রে প্রয়োজনীয় ভোজ্য-আঁশ সরবরাহের মাধ্যমে হজমেও সাহায্য করে এটি।

বৃক্কে পাথর ও মুত্রনালীর প্রদাহের চিকিৎসায়

কলার থোড়ের শরবতের সঙ্গে এলাচ মিশিয়ে পান করলে তা মুত্রথলিকে আরাম দেয় এবং বৃক্কে পাথর জমা রোধ করে। কলার থোড়ের শরবতে লেবুর রস মিশিয়ে পান করলেও বৃক্কে পাথর হওয়ার ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব। মুত্রনালীর প্রদাহজনীত ব্যথা ও অস্বস্তি দূর করতেও এই শরবত উপকারী।

ওজন কমাতে

থোড়ে থাকা আঁশ শরীরের কোষে জমে থাকা শর্করা ও চর্বি নিঃসরণ প্রক্রিয়াকে মন্থর করে। এটি বিপাকক্রিয়া উন্নত করে এবং এতে ক্যালরির পরিমাণও বেশ কম। 

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া
স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর