• শনিবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৭

  • || ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

১২৮

এক আইপিএলে দুই নিয়ম, কোয়ারেন্টাইন করতে হবে না তাদেরকে

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০২০  

আইপিএলে করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) নামে তৈরি করেছে বিশেষ স্বাস্থ্য বিধি। যেটার অন্যতম মূল ধারাই থাকছে ক্রিকেটারদের কোয়ারেন্টাইন সম্পর্কিত। আরব আমিরাতে উড়ে যাওয়ার আগে একবার কোয়ারেন্টাইন, এরপর আমিরাতে পৌঁছেও থাকতে হচ্ছে কোয়ান্টাইনে। বারবার কোভিড-১৯ টেস্ট করানো তো থাকছেই।

কিন্তু হঠাৎ করেই একই আইপিএলে দুই নিয়ম করা হচ্ছে। কারো জন্য কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক। আবার কাউকে কোয়ারেন্টাইন করতে হবে বলে ছাড়ও দেয়া হচ্ছে। যা রীতিমত বিস্ময় তৈরি করেছে সবার মাঝে।

১৯ সেপ্টেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হচ্ছে আইপিএলের ১৩তম আসর। বিসিসিআইর প্রটোকল অনুযায়ী মরু শহরে পৌঁছানোর পর প্রতিটি ক্রিকেটারকে ৬ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এর মধ্যে মোট তিনবার করোনা টেস্ট করা হবে। অন্তত দু’বার টেস্ট রেজাল্ট নেগেটিভ এলে তবেই ক্রিকেটাররা প্র্যাকটিসের ছাড়পত্র পাবেন।

কিন্তু দুই নিয়ম করে বিসিসিআই’র পক্ষ থেকে অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড ক্রিকেটারদেরকে ৬ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকবে হবে না বলে জানানো হয়েছে আইপিএল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে।

বৃহস্পতিবারই আরব আমিরাতে পৌঁছে গেছে বেশ কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি। প্রথম দল হিসেবে আমিরাতে পৌঁছে যায় রাজস্থান রয়্যালস। এরপর পৌঁছয় প্রীতি জিনতার কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। শুক্রবারই আইপিএল খেলতে আমিরাতে উড়ে যাচ্ছে চেন্নাই সুপার কিংস। দুপুর ১টায় দুবাইয়ের বিমান ধরবেন ধোনি-রায়নারা। ভারতীয় ক্রিকেটাররা চাটার্ড বিমানে আমিরাতে পৌঁছলেও বিদেশি ক্রিকেটাররা সরাসরি পৌঁছে যাবে মরু শহরে।

বৃহস্পতিবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু চেয়ারম্যান সঞ্জীব চুড়িওয়ালা জানান, ‘ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া থেকে আসা আইপিএল খেলোয়াড়দের টুর্নামেন্টের বাবলে প্রবেশের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাকে ৬ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না।’ এদিনই আমিরাতের উদ্যেশে রওনা হন বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু।

দলটির অসি ও ইংল্যান্ড ক্রিকেটার হলেন যথাক্রমে অ্যারোন ফিঞ্চ এবং মইন আলি। যারা আইপিএলের আগে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি এবং তিন ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ খেলবেন। দু’দেশের মধ্যে সীমিত ওভারের ম্যাচগুলি ইংল্যান্ডের মাটিতে ৪ থেকে ১৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে।

আইপিএল শুরুর ২দিন আগে সব ইংলিশ এবং অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারকে বিশেষ বিমানে উড়িয়ে আনা হবে আরব আমিরাতে। যাতে তারা নিজ নিজ দলের উদ্বোধনী ম্যাচের জন্য তৈরি হতে পারে। চুড়িওয়ালা বলেন, ‘বিসিসিআই এসওপি অনুসারে এটা খুব স্পষ্ট যে প্রত্যেক খেলোয়াড়কে কোয়ারেন্টাইনে যেতে হবে। তবে ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া সিরিজে খেলা খেলোয়াড়রা ইতিমধ্যে বায়ো-বাবলে থেকেই সেখানে সিরিজ খেলবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘যদি তারা সেই বায়ো-বাবলে থাকে এবং আমরা একটি চাটার্ড বিমান পাঠাতে পারি, তবে তারা অন্য খেলোয়াড়ের মতোই নিরাপদ। বিমান থেকে তাদের নামার পর কোভিড-১৯ টেস্ট-এর প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করতে হবে। তাতে সুরক্ষার বিষয়ে কোনো আপস করা হবে না।’

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর