বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

দেশের ক্রীড়াঙ্গনে আলোচিত যেসব যবিপ্রবিয়ান

দেশের ক্রীড়াঙ্গনে আলোচিত যেসব যবিপ্রবিয়ান

সংগৃহীত

আধুনিক বিশ্বে একটি দেশের সার্বিক উন্নতির মাপকাঠির মধ্যে অন্যতম ‘ক্রীড়া’। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি ক্রীড়া বিরাট ভূমিকা পালন করছে। মূলত এ কারণেই উন্নয়নের পথে ক্রীড়া একটি দৃষ্টান্ত হয়ে উঠেছে।

দেশের ক্রীড়াঙ্গনকে আরো এগিয়ে নিতে অবদান রাখছেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) একঝাঁক মেধাবী শিক্ষার্থী। খেলাধুলা অনুরাগী যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেনের তত্ত্বাবধানে খেলাধুলায় বিশেষ সাফল্য অর্জন করেছে এ বিশ্ববিদ্যালয়টি। বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিশ্ব দরবারে গৌরবের সঙ্গে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। 

শিরিন আক্তার

গত বছরের ডিসেম্বরে জাতীয় অ্যাথলেটিক্সে দ্রুততম মানবী হন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়াবিজ্ঞান বিভাগের শিরিন আক্তার। গ্রীষ্মকালীন ও জাতীয় প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মোট ১৪বার নারীদের ১০০ মিটার স্প্লিন্টে সেরা হয়েছেন তিনি। গত সেপ্টেম্বরে গ্রীষ্মকালীন অ্যাথলেটিক্সে তিনি ১১.৯৫ সেকেন্ডে দৌড় শেষ করেছিলেন। ইলেকট্রনিক টাইমারে এটি নারীদের ১০০ মিটার স্প্লিন্টে নতুন জাতীয় রেকর্ড। ২০১৬ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে তিনি বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

বিদেশের মাটি কাঁপাতে শিরিন এবছর ফেব্রুয়ারিতে কাজাখিস্তানের আস্তানায় অনুষ্ঠিতব্য নবম এশিয়ান ইনডোর অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে, ২০১৯-এ কাতারে অনুষ্ঠিত এশিয়ান গেমস চ্যাম্পিয়নশিপ, ইতালিতে ২০১৯-এর ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি গেমস, ২০১৯-এ নেপালের কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত সাউথ এশিয়ান গেমস, অস্ট্রেলিয়ায় ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমস, ২০১৬ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত অলিম্পিক গেমস রিও, ২০১৪ সালে স্কটল্যান্ডে অনুষ্ঠিত কমনওয়েলথ গেমস, ২০১৫ সালে চীনে অনুষ্ঠিত এশিয়ান অ্যাথলেটিক চ্যাম্পিয়নশিপ, ২০১৫ সালে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিচ গেমস, ২০১৩ সালে ভারতের ঝাড়খণ্ডে অনুষ্ঠিত এসএ জুনিয়র অ্যাথলেটিক চ্যাম্পিয়নশিপ, ২০১৬ সালে ভারতের গৌহাটিতে অনুষ্ঠিত সাউথ এশিয়ান গেমস, ২০১৩ সালে ভারতের পুনেতে অনুষ্ঠিত এশিয়ান অ্যাথলেটিক চ্যাম্পিয়নশিপ, ২০১৭ সালে এথেন্সে অনুষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল সেশন ফর ইয়ং, ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত সাফ এফআই টেকনিক্যাল অনলাইন সেমিনার ফর উইমেন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে স্বদেশের জন্য বয়ে এনেছেন নানা পদক ও বিরল সম্মান।

জহির রায়হান 

যবিপ্রবির শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়াবিজ্ঞান (পিইএসএস) বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী জহির রায়হান।

জহির রায়হান টোকিও অলিম্পিক ২০২০ এ বাংলাদেশের হয়ে ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। এছাড়া তিনি ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপ ও এশিয়ান ইয়ুথ অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপে নিজের ইভেন্টে অংশ নিয়ে হিটে উত্তীর্ণ হয়ে সেমিতে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন। জহিরের চারশ মিটার স্প্রিন্টে ইলেক্ট্রনিক টাইমিংয়ে ৪৬.৮৬ সেকেন্ড সময় নিয়ে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে রেকর্ড রয়েছে। এ বছর জুলাইয়ে চীনের চেঙ্গডু শহরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি গেমস ২০২৩ বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেন জহির রায়হান।

সোনিয়া আক্তার 

২০২২ সালের জাতীয় অ্যাথলেটিক্স প্রতিযোগিতায় ত্রিপল জাম্পে ১২.০২ মিটারের রেকর্ড ভেঙে ১২.৩৮ মিটারের জাতীয় রেকর্ড গড়েন সোনিয়া আক্তার। এছাড়া তিনি জাতীয় পর্যায়ে লং জাম্পে স্বর্ণপদক অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষে অধ্যায়নরত আছেন।

উম্মে হাফসা রুমকি ২০১৯ সালের সামার ন্যাশনালে ১৫ বছরের পুরোনো রেকর্ড ভেঙে উচ্চ লাফে তার প্রথম রেকর্ড গড়েন, যেটি ছিল ১.৬৮ মিটার। তারপর ৪৫তম জাতীয় প্রতিযোগিতায় ১.৭১ মিটার উচ্চ লাফ দিয়ে নতুন রেকর্ড গড়েন। পরবর্তীতে ১৬তম সামার অ্যাথলেটিক্সে ১.৭৪ মিটারের রেকর্ড গড়েন। বর্তমানে তিনি যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যায়নরত আছেন। 

রুমকি বলেন, আমি কমনওয়েলথ গেমসে অংশগ্রহণ করেছি। চেষ্টা করব বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশকে যেন তুলে ধরতে পারি। আমি না পারলেও আমার মাধ্যমে যেন কেউ বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে পারে সেই প্রচেষ্টা চালিয়ে যাব।

যবিপ্রবির আরো অনেক শিক্ষার্থী আছেন, যারা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যোগ্যতা ও সুনামের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় ও দেশকে প্রতিনিধিত্ব করছে। 

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

সর্বশেষ: