• শুক্রবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৮

  • || ২৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

ছয় সময়ে পানি পান সবচেয়ে বেশি উপকারী

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর ২০২১  

সুস্থতা সবারই কাম্য। তবে সুস্থ থাকার জন্য পুষ্টিকর খাবারের পাশাপয়াশি পর্যাপ্ত পানি পান করা জরুরি। পর্যাপ্ত পানি পান না করলে অসুস্থ হয়ে পড়ার ঝুঁকি বাড়ে। তাই শরীর সুস্থ রাখতে সঠিক পরিমাণে পানি পানের বিকল্প নেই। তবে সারাদিনের নানান কাজের ব্যস্ততার কারণে দেখা যায় ঠিকভাবে পানি পান করা হয় না। ফলে দিন শেষে শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে। এছাড়াও শরীরের নানাবিধ সমস্যা দেখা দেয়। 

আয়ুর্বেদ চিকিৎসা অনুযায়ী, শরীর সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখতে দিনের নির্দিষ্ট সময়ে সঠিক পরিমাণে পানি পান করা জরুরি। যেমন-

>> ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে দুই গ্লাস পানি পান করুন। এতে শরীরের সব অঙ্গপ্রতঙ্গ সক্রিয় হয়ে উঠবে। সেই সঙ্গে সকালের নাস্তার আগে শরীর জেগে উঠবে। খালি পেটে পানি পানে ভালো উপকারিতা পাওয়া যায়।

>> দুপুরের খাবার কিংবা রাতের খাবারের অন্তত আধা ঘন্টা আগে পানি পান করা উচিত। এতে পেট ভরা অনুভূত হবে। তখন খাবারও কম পরিমাণে খাওয়া হবে। 

>। গোসলের আগে এক গ্লাস পানি খেতে পারেন। এতে উচ্চ রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকবে। 

>> দুপুর ও রাতের খাবারের মধ্যে সাধারণত ৬ থেকে ৭ ঘণ্টার ব্যবধান থাকে। এ সময়ে পানি পান করতে ভুলবেন না। যখনই পিপাসা অনুভব করবেন তখনই পানি পান করবেন।

>> দুপুরের মতো রাতের খাবারেরও অন্তত আধা ঘন্টা আগে পানি পান করা উচিত। এতে হজমশক্তি ভালো হবে। পুষ্টি বাড়াতে পানিতে এক টুকরা লেবু কেটে দিতে পারেন। 

>> ঘুমানোর আগে এক গ্লাস হালকা গরম পানি পান করতে পারেন। এতে ঘুম, হজমশক্তি ভালো হবে। সেই সঙ্গে স্ট্রোক, হৃদরোগের ঝুঁকিও কমবে।

সূত্র: হেলদি বিল্ডার্জড।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া