শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১

৪১ বছর বয়সে এসে ফুটবলকে বিদায় বললেন ‘সুপারম্যান’

৪১ বছর বয়সে এসে ফুটবলকে বিদায় বললেন ‘সুপারম্যান’

বয়স ৪২ ছুঁই ছুঁই করছে। আগামী অক্টোবরেই ৪২তম জন্মদিনের কেক কাটার কথা তার। এর আগে ফুটবলকে বিদায় বলে দেবেন সে সম্ভাবনা ছিল না। কারণ, মাত্র তিনদিন আগে নিজেকে সুপারম্যান দাবি করে এসি মিলানের সুইডিস তারকা জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ বলেছিলেন, এখনও অবসর নেয়ার সময় হয়নি তার।

কিন্তু বাস্তবতা বড়ই কঠিন জিনিস। না চাইলেও অনেক সময় কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হয়। ইনজুরি প্রায় পুরো মৌসুমই তাকে মাঠের বাইরে বসিয়ে রেখেছিলো। এসি মিলানও নতুন করে তার সঙ্গে আর চুক্তি নবায়ন করেনি।

যে কারণে সবাই ধরে নিয়েছিলো, হেলাস ভেরোনার বিপক্ষে এসি মিলানের হয়েই ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচটি খেলতে নামবেন তিনি। এ ম্যাচ দিয়ে মৌসুমও শেষ হতে যাচ্ছিলো মিলানের। যে কারণে, দর্শকরা বিশাল এক ব্যানার নিয়ে এসেছিলো গ্যালারিতে। লিখেছিলো গুডবাই। ইব্রাহিমোভিচের নামে জয়োধ্বনিও দিতে দেখা যায় তাদের।

কিন্তু ইনজুরির কারণে স্কোয়াডেই জায়গা হয়নি তার। গ্যালারিতে বসেই ইব্রাহিমোভিচকে দেখতে হয়েছে হেলাসের বিপক্ষে এসি মিলানের ৩-০ গোলের জয়। ম্যাচ শেষে মাঠে নেমে দর্শকদের উদ্দেশ্যে ইব্রা বলে দিলেন, ‘সব ধরনের ফুটবলকে গুডবাই। ফুটবল ছেড়ে গেলেও আপনাদের ছেড়ে যাচ্ছি না।’ এ সময় আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তিনি এবং চোখের কোন বেয়ে পানিও নেমে আসে।

সমর্থকদের অভিবাদন পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। চোখ ছলছল হয়ে ওঠে তার। হাত দিয়ে বুকের ওপর হৃদয়ের আকৃতি তৈরি সমর্থকদের দিকে ছুড়ে দেন উড়ন্ত চুমো। মাঠ থেকে বের হওয়ার সময় এসি মিলান ফুটবলার এবং কর্মকর্তারা দুই পাশে সারিবদ্ধ হয়ে দাঁড়িয়ে তাকে বিদায়ী গার্ড অব অনার প্রদর্শন করেন।

এরপর সংবাদ সম্মেলনে এসে ইব্রা বললেন, কেউ তার এই বড় ঘোষণা সম্পর্কে জানতো না। বিশেষ করে দল থেকে বাদ পড়ার কারণে এটা জানানোরও সুযোগ হয়নি। তিনি বলেন, ‘এমনকি আমার পরিবারের সদস্যরাও জানতো না। কারণ, আমি চেয়েছিলাম যখন আমি অবসরের কথা ঘোষণা করবো, তখন সবাই এটা একইসঙ্গে শুনতে পাবে।’

দু’বার এসি মিলানের হয়ে খেলেছেন ইব্রাহিমোভিচ। দুইবারে ১৬৩ ম্যাচে করেছেন ৯৩ গোল। দ্বিতীয়বার ২০২০ সালের জানুয়ারিতে মিলানের সঙ্গে যোগ দেন এবং গত বছর সিরি-আ শিরোপা জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। প্রথমবার ২০১০-১১ মৌসুমে বার্সেলোনা থেকে ধারে খেলতে এসে পরের বছর চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন তিনি।

সুইডেন জাতীয় দলের হয়ে ১২১ ম্যাচ খেলে করেছেন ৬৩ গোল। তিনিই সুইডেনের সর্বোচ্চ গোলদাতা। ২০১৬ ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ খেলার পর জাতীয় দল থেকে অবসর নেন ইব্রাহিমোভিচ।

১৯৯৯ সালে সুইডিশ ক্লাব মালমো এফসি দিয়ে শুরু ক্যারিয়ার শুরু করেন। এরপর নেদারল্যান্ডস, ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স, ইংল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন ক্লাবের হয়ে শেষ পর্যন্ত সমাপ্তি টানলেন এসি মিলানে এসে। নামের পাশে ৯৮৮ ম্যাচ, ৫৭৩ গোল আর ৩২টি ট্রফি নিয়ে।

বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারের সমাপ্তি টেনে ইব্রা বলেন, ‘পরিবারকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। ধন্যবাদ জানাতে চাই আমার দ্বিতীয় পরিবার-খেলোয়াড়দের। কোচ এবং স্টাফদেরও তাদের দায়িত্বের জন্য ধন্যবাদ, সুযোগ দেওয়ার জন্য ক্লাব পরিচালকদেরও। আর হৃদয় থেকে সবচেয়ে বড় ধন্যবাদ জানাই ভক্তদের।’

দৈনিক বগুড়া

সর্বশেষ: