• মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৫ ১৪২৭

  • || ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

৫৪

ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তির আদ্যোপান্ত

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ৩০ আগস্ট ২০২০  

অনেক দিন ধরেই বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি সম্বলিত ডিভাইস। আমরা অনেকেই ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তির সাথে পরিচিত। আবার অনেকেই নতুন ভাবে পরিচিত হচ্ছি।

ফোন বা ট্যাবলেট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করার অর্থ হচ্ছে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ফোনটি অনেক তাড়াতাড়ি চার্জ করা যায়। সাধারণ ফোনে যা অসম্ভব। আর এই ফাস্ট চার্জিং ফিচারটি প্রতিনিয়তই সবার কাছে খুবই প্রিয় একটি ফিচারে পরিণত হয়েছে।

আপনার পুরাতন ডিভাইস চার্জ করতে যে সময় লাগে তার প্রায় অর্ধেক সময়ে ফুল চার্জ করতে পারবেন। তবে সব কোম্পানি একই ধরনের ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে না। বর্তমানে প্রতিটি নতুন স্মার্ট ফোনেই ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি সাপোর্ট করে। তবে বিভিন্ন কোম্পানি দাবি করছে তাদের ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্ত উন্নত মানের।

ফাস্ট চার্জিং যেভাবে কাজ করে-

চার্জের আউটপুট এম্পারেজ এবং ভোল্টেজের মাধ্যমে ফাস্ট চার্জিং পরিমাপ করা হয়। এম্পারেজ বা কারেন্ট হচ্ছে সংযুক্ত ডিভাইসের ব্যাটারি থেকে প্রবাহিত বিদ্যুতের পরিমাণ। অন্যদিকে ভোল্টেজ হচ্ছে বৈদ্যুতিক কারেন্ট এর শক্তি। ভোল্টেজকে এম্পারেজ দিয়ে গুন করলে ওয়াটেজ বের হবে, আর এই ওয়াটেজই হল মোট বিদ্যুতের পরিমাপ।

যেকোনো ডিভাইসকে ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করানোর জন্য, বেশিরভাগ কোম্পানিই এম্পারেজ বা ভোল্টেজ বুস্ট করে থাকে। যাতে সম্ভাব্য শক্তির পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। আর বেশিরভাগ ফাস্ট চার্জিং স্ট্যান্ডার্ড এম্পারেজ না বাড়িয়ে ভোল্টেজ বাড়িয়ে থাকে।

বর্তমানে ছোট ডিভাইসের জন্য স্ট্যান্ডার্ড USB 3.0 এর আউটপুট হচ্ছে 5V/1A। আর বেশির ভাগ ফোন এবং অন্যান্য ডিভাইস 5V/2.4A পাওয়ার হ্যান্ডেল করতে সক্ষম।

ওয়্যারলেস ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি-

ওয়্যারলেস চার্জিং সিস্টেম সুবিধাজনক হলেও ক্যাবলের চার্জিং স্পীড থেকে এটা কিছুটা স্লো হতে পারে। আর বেশিরভাগ ওয়্যারলেস চার্জারে কুলিং সিস্টেম থাকে না এবং চার্জিং স্পীড 5V/1A এ সীমাবদ্ধ থাকে। তবে বর্তমানে বিভিন্ন কোম্পানি ফাস্ট ওয়্যারলেস চার্জিং প্যাডগুলো বাজারজাত করছে যাতে বিল্ট-ইন তাপ ছড়িয়ে দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। আর এর মাধ্যমে আপনি ক্যাবল দিয়ে চার্জ করার মত স্পীডে আপনার ফোন চার্জ করতে পারবেন।

ভোল্টেজ এবং এম্পারেজ চার্জিং প্যাডের উপর নির্ভর করে। তবে আপনাকে নিশ্চিত হতে হবে, আপনার ফোন এবং ওয়্যারলেস চার্জিং প্যাড ফাস্ট চার্জিং স্ট্যান্ডার্ড সাপোর্ট করে কিনা। ওয়্যারলেস চার্জার কেনার সময় অনেক কিছু নিয়ে চিন্তা করতে হয়। আর তাই গুগলের সাহায্য নিয়ে কোন ওয়্যারলেস চার্জারটা বেশি ভাল তা দেখে নিতে পারেন।

তবে ল্যাপটপের ক্ষেত্রে দ্রুত চার্জিংয়ের সিস্টেমটা কিছুটা আলাদা। ইউএসবি পাওয়ার ডেলিভারিতে ফাস্ট চার্জ হয় কেননা হাই পাওয়ারের ডিভাইস যেমন, ল্যাপটপ এ চার্জ করতে অ্যাডাপ্টার বা পোর্টেবল পাওয়ার ব্যাংক ব্যবহারে তেমন ফাস্ট চার্জ হবে না। বর্তমানে ইউএসবি-সি ইনপুট/আউটপুট পোর্টগুলো এখন বেশ স্ট্যান্ডার্ড। অ্যাডাপ্টার এবং পাওয়ার ব্যাংক এর সাহায্যে 18W বা এর থেকেও বেশি পাওয়ারে ফোন চার্জ করতে সক্ষম। আর পাওয়ার ডেলিভারি স্পেসিফিকেশনের মাধ্যমে একটি ডিভাইস সর্বোচ্চ 5A বা 100W কারেন্টে চার্জ করতে পারে।

ফাস্ট চার্জিংয়ের জন্য আপনার যা প্রয়োজন-

ফাস্ট চার্জ করার জন্য কি কি লাগবে তা আপনার কাছে থাকা ডিভাইসের উপর নির্ভর করে। আপনার ফোন যে চার্জিং স্ট্যান্ডার্ডটি সাপোর্ট করে তা অন্য ডিভাইস থেকে ভিন্ন হতে পারে। প্রথমে আপনার ফোনে কোন স্ট্যান্ডার্ড এর ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে তা চেক করুন। তারপর আপনার কাছে থাকা অ্যাডাপ্টারটি সেই স্ট্যান্ডার্ডকে সাপোর্ট করে কিনা তা চেক করুন। সাধারণত অ্যাডাপ্টার এর লেবেলে এই সমস্ত তথ্য পাবেন। তারপর আপনার চার্জিং ক্যাবলটি ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে কিনা তা নিশ্চিত করুন। এক্ষেত্রে আপনার ফোনের বা অ্যাডাপ্টারের সাথে দেয়া চার্জিং ক্যাবল ব্যবহার করাই সর্বোত্তম। আর যদি আপনার নতুন অ্যাডাপ্টার, চার্জিং ক্যাবল বা ওয়্যারলেস চার্জিং প্যাড কিনতে হয় তাহলে তা কোন স্ট্যান্ডার্ড সাপোর্ট করে তা নিশ্চিত হওয়ার পর কিনুন অন্যথায় আশানুরূপ ফাস্ট চার্জিং পাবেন না।

মনে রাখবেন, আপনি যতই পাওয়ারফুল ফাস্ট চার্জার ব্যবহার করেন না কেন আপনার ডিভাইসটি তার চার্জিং সার্কিটটি যেভাবে ডিজাইন করা হয়েছে ঠিক সেই পরিমাণ পাওয়ার গ্রহণ করবে। কাজেই ফাস্ট চার্জিং করার জন্য আপনার একটি ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টেড ডিভাইস দরকার। যে ডিভাইস ফাস্ট চার্জিং স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী চার্জিং করতে সক্ষম। এছাড়াও একটি ফাস্ট চার্জিং অ্যাডাপ্টার ও একটি ডেটা ক্যাবলও লাগবে।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর