• মঙ্গলবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

  • || ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সেন্টমার্টিনে আবারো ধরা পড়ল ২৩ কেজি ওজনের পোপা মাছ

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ২০ নভেম্বর ২০২২  

আবদুল গণির ( ৪৫) জালে বড় মাছ ধরা পড়ার কারণে তিনি বরাবরই আলোচনায় থাকেন। প্রায় সময়ই তাকে নিয়ে নিউজ প্রকাশিত হয় দেশের প্রথমসারির সব গণমাধ্যমে। বিশেষ করে বঙ্গোপসাগরের পোপার সঙ্গে যেন সেন্টমার্টিনের জেলে গণির রয়েছে বন্ধুত্ব। তার ডাকে যেন সাড়া দিয়ে বারবার তার জালেই ধরা দিচ্ছে সাগরের বড় পোপা মাছ। গত পাঁচ বছরে পাঁচটি বড় পোপা মাছ তার জালে উঠে এসেছে। এসব মাছ বিক্রি করেই লাখপতি হয়েছেন সেন্টমার্টিনের জেলে গণি। চলতি মাসেই তিনটি বড় পোপা মাছ তার জালে দিয়েছেন ভাগ্য দেবতা।

শনিবার সকালে আবদুল গণির মালিকানাধীন ‘এফবি মায়ের দোয়া’ নামে ট্রলারে ২৩ কেজি ওজনের একটি পোপা মাছ ধরা পড়ে। সেন্টমার্টিনের এক সওদাগর মাছটি ৮৫ হাজার টাকায় কিনে নেন। জেলে গণি বলেন, মাছটি স্ত্রী প্রজাতির হওয়ায় তিনি আশানুরূপ দাম পাননি।

গনি বলেন, প্রতিদিনের মতো ট্রলার নিয়ে ভোরে মাছ শিকারে যায় তার দলবল। সকাল ৮টার দিকে জাল টানতে গিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির মাছের সঙ্গে বিশাল একটি মাছ দেখে সবাই খুশিতে আত্মহারা। ট্রলার তীরে পৌঁছে অন্যান্য মাছটির সঙ্গে এই মাছটিও বাজারে তুলেন গনি। দাম হাঁকান তিন লাখ ৫০ হাজার টাকা। তবে মাছটি মেয়ে প্রজাতির জানতে পেরে আর কেউ আগ্রহী না হওয়ায় এক ব্যবসায়ীকে মাছটি ৮৫ হাজার টাকায় দিয়ে দেন। এরপরও শুকরিয়া প্রকাশ করেন তিনি।

গনি আরও বলেন, মাছ বিক্রি করে দুটো মাছ ধরার ট্রলার, ৪০টি জাল ক্রয়ের মাধ্যমে বিনিয়োগ করি। সেই সাথে বাড়িটিও করা হয়। এক ছেলে এক মেয়েসহ তার পরিবারে ২০ জনের মতো সদস্য সংখ্যা রয়েছে বলে জানান তিনি।

টেকনাফ উপজেলার মৎস্য কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, স্থানীয় লোকজনের কাছে মাছটি ‘কালা পোপা’ নামে পরিচিত। এ মাছের মূল আকর্ষণ পেটের ভেতরে থাকা পটকা বা বায়ুথলি (এয়ার ব্লাডার)। এই বায়ুথলি দিয়ে বিশেষ ধরনের সার্জিক্যাল সুতা তৈরি করা হয়। সার্জিক্যাল সুতা তৈরি করা যায় বলে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই মাছের চাহিদা আছে। এ জন্য পোপা মাছের চড়া দাম।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান জানান, শনিবার ভোরে দ্বীপের বাসিন্দা আবদুল গণির নেতৃত্বে কয়েক জেলে বঙ্গোপসাগরের মাছ শিকারে যান। সকালে দ্বীপের পশ্চিম পাড়াস্থল সাগরে জাল তুলে একটি বড় পোপা মাছ পান। মাছটি নিয়ে দ্বীপের জেটি ঘাটে ফিরে আসার পর উৎসুক মানুষের ভিড় জমে। ধরা পড়া ২৩ কেজি ওজনের পোপা মাছটির দাম হাঁকান সাড়ে তিন লাখ টাকা। পরে মাছটি ৮৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন জেলে গণি।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া