• শনিবার   ২১ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯

  • || ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩

গাড়ির নতুন টায়ারে কাঁটার মতো থাকে কেন?

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ২০ জানুয়ারি ২০২২  

গাড়ি কেনার পর কিংবা টায়ার বদলে নতুন টায়ার নেওয়ার পর একটি বিষয় হয়তো খেয়াল করেছেন। নতুন টায়ারের সঙ্গে কাঁটার মতো রাবারের কিছু বাড়তি অংশ থাকে। অনেক সময় মনে প্রশ্ন আসে এগুলো কী এবং এর কাজই বা কী? এগুলো কি টায়ারের কার্যক্ষমতা বাড়ায়?

আসলে টায়ারের বাইরে কাঁটার মতো রাবারের অংশগুলো তেমন কোনো কাজে আসে না। এমনকি টায়ারের কার্যক্ষমতাও বাড়ায় না। একে বলা হয় ভেন্ট স্প্রেউ (Vent Spew)। যা নতুন টায়ারে দেখতে পাওয়া যায়। এগুলো ইচ্ছাকৃতভাবে তৈরি করা হয় না। মূলত একটা টায়ার কিওর করার সময় আপনাআপনি তৈরি হয়।টায়ার কিওরিং হচ্ছে একটা পদ্ধতি যেখানে নরম রাবর দিয়ে তৈরি গ্রীন টায়ারকে চাপ ও তাপের সাহায্যে ভলকানাইজ করে দৃঢ় করা হয় ও ও টায়ারটাকে অন্তিম রূপে নিয়ে আসা হয়।টায়ার কিওর করার সময় যেসব জিনিসের প্রয়োজন হয়। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে টায়ার মোল্ড। এটি ধাতুর তৈরি একটা ছাঁচ।

এটা দুই বা ততোধিক অংশে আলাদা করা যায় এবং এর মধ্যে গ্রীন টায়ারকে ঢুকিয়ে অংশগুলোকে জোড়া দিয়ে ছাঁচটা আগের অবস্থায় নিয়ে আসা হয়।অপরটি হচ্ছে গ্রীন টায়ার। টায়ার তৈরিতে ব্যবহৃত অংশগুলোকে যেমন বীড, রাবার প্লাই, স্টিল বেল্ট ইত্যাদিকে একত্রিত করে টায়ারের একটা প্রাথমিক রূপ দেওয়া হয়। কিওর করার সময় গ্রীন টায়ার ছাঁচের ভেতর থাকে। গ্রীন টায়ারের রাবার নরম অবস্থায় থাকে।টায়ার কিওরিং ব্লাডার রাবারের তৈরি। কিওর করার সময় ব্লাডারটাকে গ্রীন টায়ারের মধ্যে ঢুকিয়ে রাখা হয়। টায়ার কিওরিং প্রক্রিয়াটা একটা টায়ার কিওরিং প্রেসের মধ্যে ঘটানো হয়।

এই প্রক্রিয়ায় গরম পানি এবং বাষ্প ব্লাডারের মধ্যে প্রবেশ করিয়ে গ্রীন টায়ারের উপর উচ্চ চাপ ও তাপ প্রয়োগ করা হয় ফলে গ্রীন টায়ারটা ছাঁচের আকৃতি পায় সঙ্গে সঙ্গে ভলকানাইজ হয়ে এটা টায়ারের আকৃতি ও শক্তি পায়।সবশেষ প্রক্রিয়ার সময় কিছুটা পরিমাণ বাতাস গ্রীন টায়ার ও ছাঁচের মধ্যে আটকা পড়ে যায়। এই বাতাস বের করে না দিলে তৈরি টায়ারের মধ্যে কিছু খুত তৈরি হয়। বাতাস বের করার জন্য ছাঁচের মধ্যে কিছু সূক্ষ্ম ফুটো রাখা হয়। এগুলোকে স্প্রেউ হোল বা ভেন্ট স্প্রেুস বলে।কিওর করার সময় প্রচণ্ড চাপ ও তাপে বাতাসের সঙ্গে সঙ্গে কিছুটা রাবার স্প্রেউ হোল দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করে তাই টায়ারে ভেন্ট স্প্রেউ দেখতে পায়।

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া