• শুক্রবার ০২ জুন ২০২৩ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৯ ১৪৩০

  • || ১২ জ্বিলকদ ১৪৪৪

‘ত্বকের নিচে বসবে স্মার্টফোনের মতো ডিভাইস, চার্জ দেবে শরীর’

দৈনিক বগুড়া

প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০২৩  

ভবিষ্যতে মানুষের ত্বকের নিচে সংযুক্ত থাকবে স্মার্টফোনের মতো ডিভাইস, এমনটাই মনে করেন মোবাইল ফোনের জনক আমেরিকান ইঞ্জিনিয়ার মার্টিন কুপার। সোমবার সিএনবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন আভাস দেন তিনি। মার্টিন কুপার বলেন, ভবিষ্যতে দেখা যাবে মানুষের কানের নিচে ফোনের ডিভাইস যুক্ত থাকবে, যার মাধ্যমে কথা বলা ও শোনা যাবে। এই ডিভাইসটি আলাদাভাবে চার্জ দেওয়ার প্রয়োজন হবে না, এটি মানুষের শরীর থেকেই চার্জ নেবে।

কুপার আরো বলেন, মানুষের শরীরই একটা পারফেট চার্জার। আমরা যখন খাবার খাই তখন শরীরে শক্তি উৎপন্ন হয়। এই প্রক্রিয়াটাকেই বিজ্ঞানীরা হয়ত কাজে লাগাতে পারে। তাছাড়া ছোট ওই ডিভাইস চালাতে খুব বেশি শক্তির প্রয়োজন হবে না।

কুপারের এমন বক্তব্যের কারণে স্বাভাবিকভাবে আভাস পাওয়া যাচ্ছে, ভবিষ্যতে মোবাইল ফোনে আসছে ব্যাপক পরিবর্তন। মানুষের শরীরে বসতে পারে শক্তিশালী ক্ষমতা সম্পন্ন সেন্সর। ইতোমধ্যে কম্পিউটারকে মানুষের মস্তিষ্কের সঙ্গে সম্পৃক্ত করতে ইলন মাস্কের নিউরালিংকের মতো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কাজ শুরু করে দিয়েছে।

১৯৭৩ সালে প্রথম মোবাইল ফোন উদ্ভাবন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে নতুন বিপ্লব নিয়ে আসেন মার্টিন কুপার। তখন তিনি মটোরোলা কোম্পানির ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

 

দৈনিক বগুড়া
দৈনিক বগুড়া