শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শাজাহানপুরে ২টি অবৈধ মাটি উত্তোলন পয়েন্ট অভিযান; গ্রেফতার ৪

শাজাহানপুরে ২টি অবৈধ মাটি উত্তোলন পয়েন্ট অভিযান; গ্রেফতার ৪

সংগৃহীত

বগুড়ার শাজাহানপুরে ২টি অবৈধ মাটি উত্তোলন পয়েন্টে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৪ জনকে আটক ও অ্যাসকেভেটর (খননযন্ত্র) জব্দ করা হয়েছে।

শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার চোপিনগর ইউনিয়নে শাহনগর ও গোহাইল ইউনিয়নে আতাইল বাজারের পার্শ্ববর্তী স্থানে অবৈধ মাটি মাটি উত্তোলন পয়েন্ট অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাজী মোহাম্মদ অনিক ইসলাম।

শাহনগর মাটি উত্তোলন পয়েন্ট অভিযানের খবর পেয়ে অবৈধ মাটি উত্তোলন লোকজন পালিয়ে যায়। এসময় মাটি কাটার কাজে ব্যবহৃত এক্সক্যাভেটর জব্দ করা হয়েছে।

গোহাইল ইউনিয়ন আতাইল এলাকায় পুকুর হতে অবৈধ মাটি উত্তোলনরত অবস্থায় ৪ জন ব্যক্তিকে আটক করে।

আটককৃতরা হলো উপজেলার গোহাইল আতাইল বাজার আজিজার মোল্লার ছেলে আলী হাসান মিলন (৪০), সারিয়াকান্দি উপজেলার তইবর রহমান ছেলে মোঃ মজুনু মিয়া (২৫), নাটোর সদর তেগাছি এলাকার উজিরের ছেলে শাহা আলম (৩০) এবং একই এলাকার আব্দুর রাজ্জাক ছেলে নাজমুল সরকার।

জানাগেছে,উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মোহাম্মদ অনিক ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ শাহনগর নামক স্থানে মোবাইল কোর্টের অভিযান মাটি কাটার কাজে ব্যবহৃত এক্সক্যাভেটর জব্দ করে স্থানীয় ইউপি মেম্বার জনাব মো: রফিকুল ইসলাম এর জিম্মায় প্রদান করা হয়েছে।

এছাড়াও গোহাইল আতাইল বাজারে পার্শ্ববর্তী স্থানে অবৈধ মাটি উত্তোলন সময় ৪ জন ব্যক্তিকে আটক করে সঙ্গীয় ফোর্স পুলিশ। পরে গোহাইল ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বাদী হয়ে বিধি বহির্ভূতভাবে মাটি উত্তোলন এবং উত্তোলিত মাটি বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে ব্যবহারের অপরাধে আটককৃত চারজনের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করেছেন।

শাজাহানপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মোহাম্মদ অনিক ইসলাম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা সত্যতা নিশ্চিত করেন। জনস্বার্থে মোবাইল কোর্টের এরূপ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান।

এ বিষয়ে শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম বলেন, গোহাইল ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বাদী হয়ে নিয়মিত মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার বিকেলে আসামিদের আদালতে পাঠিয়ে হয়েছে।

সর্বশেষ: