শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

মহাসড়কের বগুড়া অংশে ৩ ওভারপাস উদ্বোধন

মহাসড়কের বগুড়া অংশে ৩ ওভারপাস উদ্বোধন

সংগৃহীত

সাসেক-২ প্রকল্পের টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা থেকে বগুড়া হয়ে রংপুর পর্যন্ত জাতীয় মহাসড়কের বগুড়া অংশে নির্মিত ১টি রেলওভারপাসহ ২টি ওভারপাসের উদ্বোধন করা হয়েছে। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সচিবালয় থেকে ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এছাড়াও এলেঙ্গা (টাঙ্গাইল) থেকে রংপুর মহাসড়কে রেলওয়ে ওভারপাস, ৭টি ওভারপাস ও ২টি সেতু যান চলাচলের জন্য উন্মুক্তকরণ করা হয়েছে।

উদ্বোধন উপলক্ষে এদিন বগুড়া জেলা প্রশাসক সভাকক্ষে ভার্চুয়ালি অংশ নেয় জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ মোস্তফা আলম নান্নু, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মেজবাউল করিম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোতাহার হোসেন প্রমুখ। 

জানা যায়, টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা থেকে রংপুরের মর্ডান মোড় পর্যন্ত ১৯০ দশমিক ৪ কিলোমিটার সড়ক ফোরলেনে উন্নীতকরণের কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০২২ সালের জুন মাসে। কিন্তু নানা কারণে অনেকটা পিছিয়ে যায় প্রকল্পের কাজ। চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসে এ প্রকল্পের নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। এ মহাসড়ক খুলে দেওয়া হলে প্রায় অর্ধেক সময় রংপুর থেকে রাজধানী ঢাকায় যাওয়া যাবে। মহাসড়কটি সাউথ এশিয়ান সাব-রিজিওনাল ইকোনমিক কো-অপারেশন (সাসেক) করিডোর, এশিয়ান হাইওয়ে-২, বিমসটেক-২ এবং সার্ক হাইওয়ে করিডোর-৪ এর উল্লেখযোগ্য অংশ। বাংলাদেশ সরকার ও এশিয় উন্নয়ণ ব্যাংকের অর্থায়নে সাসেক-২ প্রকল্পের মাধ্যমে ধীরগতি সম্পন্ন যানবাহনের জন্য পৃথক লেনের সংস্থানসহ মহাসড়কটিকে ৬-লেনে উন্নীত করা হচ্ছে।

প্রকল্পের আওতায় সিরাজগঞ্জের হাটিকামরুলে পৃথক গ্রেডবিশিষ্ট একটি ইন্টারচেঞ্জ, ৫টি ফ্লাইওভার, ৩২টি সেতু ও ৩৯ টি ওভারপাস, ১৮০টি কালভার্ট এবং পথচারী পারাপারের জন্য ১১টি পথচারী সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে। যার মধ্যে ১৪টি সেতু, ১টি ফ্লাইওভার ও ১৫টি ওভারপাস ইতিমধ্যে যান চলাচলের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেছেন। প্রকল্পের আওতায় আরও ১টি রেলওভারপাস যেটি বগুড়ার তিনমাথায়, ৭টি ওভারপামের মধ্যে ১টি

শাজাহানপুরের বি-ব্লক ক্যান্টনমেন্টে ও অপরটি ফুলতলাসহ ২টি সেতু গতকাল শনিবার উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। নির্মিত অবকাঠামোসমুহ সিরাজগঞ্জ, বগুড়া ও রংপুর জেলায় অবস্থিত। অবকাঠামোসমুহ যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়ায় মহাসড়কে যাতায়াত আরও নিরাপদ ও আরামদায়ক হবে।

সর্বশেষ: