মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

আদমদীঘিতে কৃষিতে যন্ত্রের ব্যবহারে উপকৃত হচ্ছে কৃষকেরা

আদমদীঘিতে কৃষিতে যন্ত্রের ব্যবহারে উপকৃত হচ্ছে কৃষকেরা

সংগৃহীত

বগুড়ার আদমদীঘিতে দিন দিন বাড়ছে কৃষি যন্ত্রের ব্যবহার। এর ফলে নানা দিক দিয়ে উপকৃত হচ্ছে কৃষকেরা। শ্রমিক সংকট,স্বল্প সময়ে জমি চাষ করা, ধান কাটামাড়াই ও সময় ও খরচ বাচায় এমন যন্ত্রের দিকে ঝুঁকছে কৃষকেরা। অন্য দিক দিয়ে এসব আধুনিক কৃষি যন্ত্র ব্যবহারে নানা দিক দিয়ে সাহায্য করছে সরকার। এসব কারণে উপকৃত হচ্ছে কৃষকেরা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কৃষকদের জন্য প্রতি মৌসুমে সরকারের পক্ষ থেকে ভর্তুকিতে সিডার পাওয়ার ট্রেলার, হার্ভেষ্টার মেশিন, গার্ডেন ট্রেলার, ধান মাড়াইয়ের মেশিনসহ নানা ধরণের কৃষি যন্ত্রগুলি প্রদান করা হচ্ছে। কৃষকরা জানিয়েছেন, এতে করে কম সময়ে ও কম খরচে চাষাবাদের পাশাপাশি ফলনও বৃদ্ধি পেয়েছে অনেক গুন। আবার স্বল্পমুল্যে এই যন্ত্রগুলি ভাড়াও পাওয়া যাচ্ছে। তাছাড়া অল্প জমি চাষের জন্য গার্ডেন ট্রিলার মেশিন কৃষকের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে কৃষি সমবায় সমিতির মাধ্যমে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের মেশিনগুলি প্রদান করা হচ্ছে। উপজেলার সান্দিড়া গ্রামের কৃষক রমজান আলী জানান, চলতি আমন মৌসুমে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের জন্য মৌসুমি শ্রমিকদের খুঁজতে হয়নি। আধুনিক হার্ভেষ্টার মেশিন দিয়ে প্রতি বিঘা জমির ধান ২ হাজার টাকা করে ধান কাটা ও মাড়াই করে নিয়েছি। এতে করে আমার খরচ ও সময় কম লেগেছে। এ ইউনিয়নে
আমরা মতো পদ্ধতি ব্যবহার করে অনেক কৃষক উপকৃত হয়েছে।

নশরৎপুর ইউনিয়নের কৃষক গোলাম রব্বানী জানান, সবজি বাগানসহ নানা ছোট ছোট পরিতাক্ত স্থানে বড় মেশিন দিয়ে চাষ করা সমস্যা। তাই আমি বগুড়া কৃষি অফিস থেকে একটি গার্ডেন ট্রেলার মেশিন কিনেছি। এই মেশিন দিয়ে আমি বাড়ির আশে পাশে ছোট ছোট স্থানে চাষাবাদ করে নানা প্রকার সবজি চাষ করছি।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার মিঠু চন্দ্র অধিকারি বলেন, দেশের মূল চালিকা শক্তিই হচ্ছে কৃষি। তাই কৃষকদের সময় ও খরচ বাঁচাতে ও পুরাতন পদ্ধতি থেকে আধুনিক কৃষি যন্ত্রের ব্যবহারে উৎসাহ প্রদান করা হচ্ছে নানা ভাবে। উপজেলার কৃষকদের মাঝে ৪টি কম্পিউটার হার্ভেষ্টার মেশিন প্রদান করা হয়েছে। ১৫টি ধান মাড়াই যন্ত্র ভূর্তিকী মুল্যে বিতরণ করা হয়েছে। এই কার্যক্রম অব্যহত
থাকবে।

সর্বশেষ: